Breaking News

প্রবাসীর স্বপ্ন পূরণে চালু হতে যাচ্ছে পেনশন ফান্ড, যারা যারা পাবেন এই ফান্ড!

প্রবাসীর স্বপ্ন পূরণে চালু ’হতে যাচ্ছে পেনশন ফান্ড, যারা যারা পাবে এই ফান্ড! এই ব্যাপারে বিস্তারিত একটি ভিডিওতে দেওয়া আছে।

বিস্তারিত ভিডিওতে দেওয়া আছে, ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

আরও পড়ুন

পাসপোর্ট অধিদপ্তরের ভুলে সুদূর ওমানে ভিসা নবায়ন করতে পারছেন না বরিশালের এক ভুক্তভোগী রেমিট্যান্স যোদ্ধা। বিষয়টি ধরা পড়ার পর বরিশাল পাসপোর্ট অফিস কর্তৃপক্ষ ৩/৪ দিনের মধ্যে সমস্যা সমাধান করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

এরপর ২ সপ্তাহ কেটে গেলেও সমস্যার সমাধান না হওয়ায় ওমানে ভিসা নবায়ন করতে পারছেন না তিনি। প্রতিকার পেতে বরিশাল পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালককে (ডিডি) ফোন দিলে এখন তিনি ফোনও ধরছেন না বলে অভিযোগ করেছেন ওমান প্রবাসী জুম্মান হাওলাদার। তার বাড়ি বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের সাপানিয়া গ্রামে।

জুম্মান জানান, ২০১৭ সালে তিনি বরিশাল পাসপোর্ট অফিসের মাধ্যমে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট করে ওমান যান। গত বছর মার্চে দেশে ফিরে করোনার কারণে বিপদে পড়লেও সংক্রমণ কিছুটা কমার পর আবার ওমান চলে যায় সে। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর ওমানে ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে তার। পাসপোর্টে মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী বছরের জুলাইয়ে।

ওমান সরকারের নিয়মানুযায়ী পাসপোর্টে কমপক্ষে এক বছর মেয়াদ না থাকলে ভিসা নবায়ন হয় না। গত ২ জুন ওমানে বাংলাদেশ দূতাবাসে নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে পাসপোর্ট নবায়ন করতে দেন তিনি। সেখান থেকে তাকে জানানো হয় পাসেপোর্টটি বাংলাদেশ পাসপোর্ট অধিদপ্তরে স্ক্যানিং করা নয়। তিনি ফোনে যোগাযোগ করেন বরিশাল পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালকের সাথে।

তিনি পাসপোর্ট নম্বর নিয়ে স্ক্যানিং না করার বিষয়টি নিদেজের ভুল স্বীকার করেন। একই সাথে ঢাকা অফিসে মেইল পাঠিয়ে ৩/৪ দিনের মধ্যে সমস্যা সমাধান করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন পাসপোর্ট অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক। কিন্তু ২ সপ্তাহ অতিবাহিত হতে চললেও এখন পর্যন্ত তার সমস্যার সমাধান হয়নি।

এখন বরিশাল অফিসের উপ-পরিচালককে ফোন দিলে তিনি ফোনও ধরেন না বলে অভিযোগ করেন তিনি। স্ক্যানিং জটিতলার কারণে ওমানে পাসপোর্ট নবায়ন করতে না পাড়ায় ভিসা নবায়ন নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন রেমিট্যান্স যোদ্ধা জুম্মান।

এ বিষয়ে জানতে বরিশাল পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালকের সরকারি মুঠোফোন নম্বরে একাধিকবার কল দেয়া হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

About admin

Check Also

শেষমেশ বাধ্য হয়ে বাপ-ছেলের যৌও;; ন নি; র্যা;;তন মেনে নেন জোছনাকে

গভীর রাত। বাসার সবাই ঘুমিয়ে। ঘুমিয়ে ছিলেন জোছনা বেগমও। কিন্তু হঠাৎ অনুভব করেন তার শ’রীরে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *